মেনু নির্বাচন করুন

এনজিও আহবান

এ্যাকটিভ সিটিজেনসদের উদ্যোগে গড়ে ওঠা একটি সংগঠন
২০১০ সালে সারাদেশে এ্যাকটিভ সিটিজেনস এর ২০ টি কমিউনিটির একটি কমিউনিটি ছিল লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলা। এই কমিউনিটিতে মোট ৪ টি এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডার্স ট্রেনিং অনুষ্ঠিত হয়। ৪ টি প্রশিক্ষণে মোট ১৬০ জন এ্যাকটিভ সিটিজেন ইয়ূথ লিডার র্সষ্টি হয়। প্রত্যেকটি প্রশিক্ষণ শেষে ঐ সংশ্লিষ্ট কমিউনিটির চাহিদা নিরুপনের ভিত্তিতে সামাজিক উদ্যোগ গ্রহন করে। তারমধ্যে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নিরক্ষরতা দূরীকরণ, স্যানিটেশন ইত্যাদি। কিছুদিন তারা সফল ভাবে তাদের উদ্যোগ চালিয়ে নিতে থাকে এরপর তারা বুঝতে পারে যে, তাদের কমিউনিটিতে নিরক্ষরতা, দারিদ্রতা । ধনী দরিদ্রের বৈষম্য, বেকারত্ব, নারী নির্যাতন সহ নানামুখী সমস্যা রয়েছে এবং প্রত্যেকটি সমস্যায় প্রকট। তাই কোন একটি বা কয়েকটি নির্দষ্ট সমস্যা নিয়ে কাজ করলে তাদের কমিউনিটির সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়, তাই এসকল সমস্যা সমাধানে তারা সকল একটিভ সিটিজেনসরা একত্রিত হয় এবং তাদের সামাজিক উদ্যোগ সমূহ সফল করবার জন্য তাদেরকে আরো সংগঠিত ভাবে কাজ করা প্রয়োজন। তারা সিদ্ধান- নেয় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায় যে ৪টি এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডারশিপ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে সেকল প্রশিক্ষণ থেকে হয়েছে, প্রশিক্ষিত সকল তরুণ ও স'ানীয় জনসাধারনের অংশগ্রহণে একটি স্বেচ্ছাব্রতী সংগঠন গড়ে তুলবে। যে সংগঠন কমিউনিটির কোন একটি নির্দষ্ট সমস্যা নয়, বরং কমিউনিটি সেসকল সমস্যায় সমাধনের উদ্যোগ নেবে যেগুলি স্বেচ্ছাশ্রম অথবা নিজেরা সংগঠিত হলেই সম্ভব। সকলের মতামতে সংগঠনের নাম দেয় ’আহবান” সংগঠনের লক্ষ্য হিসেবে নির্ধারিত হয় তাদের এলাকার যুব ও দারিদ্র পিছিয়ে পড়া জনগোষ্টিকে সংগঠিত করে তাদের আর্থ-সামাজিক কল্যাণ ও জীবন মানের উন্নয়ন সাধন করা । এর কার্যক্রমকে মূলত দুভাবে পরিচালিত করার সিদ্ধান- নেয় এক, এ্যাকটিভ সিটিজেন সহ কমিউনিটির যুবদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতাবৃদ্ধি ও কর্মমুখী হিসেবে গড়ে তোলা এবং দুই, সামাজিক বিভিন্ন ইস্যূতে সচেতনতামূক কর্মসূচীর মাধ্যমে জাগরণ সৃষ্টি করা।
দক্ষতাবৃদ্ধি ও কর্মমুখী উদ্যোগ হিসেবে ইতোমধ্যে যেসকল কর্যক্রম পরিচালিত হয়েছে এবং বর্তমানে চলছে তা হলো,
দারিদ্র বিমোচনের জন্য নারীদের কর্ম সংস'ানের সৃষ্টিতে টেইলারী ও সেলাই প্রশিক্ষন হয়েছে ২ টি ফলে ৪০ জন মেয়ে প্রশিক্ষণ পাওয়ার পর বর্তমানে ১২ জন মেয়ে সেলাই কাজের মাধ্যমে কর্ম সংস'ানের সৃষ্টি হয়েছে।
যুবদের মৎস চাষে উদ্ভুদ্ধ করার লক্ষে মৎস চাষ প্রশিক্ষণ হয়েছে ৪০ জন মৎস চাষ প্রশিক্ষণের পর সঞ্চয়ের মাধ্যমে ১.৩০ একর জমিতে মাছ চাষ করে আয় করছে।
গৃহপালিত পশু পালনের মধ্য দিয়ে কর্ম সংস'ান সৃষ্টির লক্ষ্যে গবাদী পশু পালন প্রশিক্ষণ হয়েছে ৩০ জন যুব প্রশিক্ষণ শেষে সাংগঠনিকভাবে ৮টি গরু এবং ৬টি ছাগল পালন করছে।
দারিদ্র বিমোচনে নার্সারী তৈরি উদ্ভুদ্ধ করার লক্ষ্যে নার্সারী ও শাক-সবজি চাষ এর মাধ্যমে ৪০জন যুব ১২ শতাংশ জমিতে নার্সরী তৈরি করে সফল হয়েছে।
সামাজিক বিভিন্ন ইস্যূতে সচেতনতামূক যেসকল কর্মসূচীর চলমান তা হলো
ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি ওয়ার্ড থেকে ৩জন করে নিয়ে ২৭ জনের সমন্বয় পরিষদ গঠিন হয়েছ।
বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ,জন্মনিবন্ধন ,যৌতুক, পারিবারিক নির্যাতন,নিরক্ষরতা, স্যানিটেশন, স্বাথ্যসচেতনতা ইত্যদি ইস্যুতে নিযমিত কমিউনিটি বৈঠক হয়।
বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে সামাজিক সমাবেশ, , প্রতিরোধ কমিটি গঠন ইত্যাদির মাধ্যমে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি কাজ হচ্ছে।
চর রমনী মোহন ইউনিয়নকে নিরক্ষর মুক্ত করার লক্ষ্যে জরিপ কর্মসূচীর মাধ্যমে গণশিক্ষা কেন্দ্র চালু করা হয়েছে।

মতবিনিময় সভার মাধ্যমে সালিশ ব্যবস'াপনা ও আইনি সহায়তা সম্পর্কে ধারনা প্রদান করা হচ্ছে।
শিশু বিদ্যানিকেতন স্কুল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জেলে পাড়ার অবহেলিত শিশুদের স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে শিক্ষাদান চলছে।

পূর্বে চর রমনী মোহন ইউনিয়নের স্যানিটেশনের অবস'ান ছিল মাত্র ২৫%। এই অবস'ার উত্তোলন ঘটানোর জন্যে একটি সামাজিক মানচিত্র তৈরী করা হয়। শতভাগ স্যানিটেশন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ডেমো করে দেখানো হয়। ক্যাম্পেইন এর মাধ্যমে জনমত সৃষ্টি হ্‌চ্েছ।

কার্যক্রমগুলো পরিকল্পনা মাফিক হচ্ছে কিনা, তার জন্য মাসিক মনিটরিং করা হয় এর মাধ্যমে সংকট কি? উওরণে করণীয নির্ধারণ করাহয়।
ইউনিয়ন পরিষদের ১৩ টি স্টাডিং কমিটি এই কর্মযজ্ঞে অন-রভূক্ত রয়েছে যার ফলে কার্যক্রমগুলি বাস-বায়নের সহায়ক হচ্ছে। অনেক সফলতার মাঝেও আহবানের এগিয়ে যাওয়াতে রয়েছে অনেকগুলি চ্যালেঞ্জ যেমন এ্যাকটিভ সিটিজেনস ইয়ূথ লিডারদের অনেকের স্বেচ্ছাশ্রমে অনাগ্রহ, সামজিক কুসংস্কার, সাধারণ মানুষের গতানুগতিক এনজিও দের দান খয়রাত সংস্কৃতিতে অভ্যস-তা ইত্যাদি।
’আহবান’ সংগঠনের সদস্যরা মনেকরে সমাজে সমস্যার সুনির্দষ্ট কোন গন্ডি নেই, প্রতিনিয়তই নতুন নতুন সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে । তাই তারা তাদের সংগঠনকে এমন ভাবে এগিয়ে নিতে চাই যাতে কমিনিটির এসকল সমস্যা সমাধানে সোচ্চার ভূমিকা রাখতে পারে। উল্লেখ্য, এই কাজটি এগিয়ে নেবার ক্ষেত্রে সার্বিক সমন্বয় ও অনন্য ভূমিকা রেখে চলেছেন এ্যাকটিভ সিটিজেনস সহায়ক মোহাম্মদ হানিফ সহ একদল ইয়ূথ লিডার। আহবান এর বিভিন্ন কার্যক্রম  সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে লগইন করুন .....

https://www.facebook.com/ahobanbd.org?fref=ts

web: www.ahobanbd.org